একদিন এক ভিড় ট্রেনের কামরায়

সবাই ঠেসাঠেসি করে দাঁড়িয়ে , একটা বাচ্চা ছেলে গান ধরেছে।

“একবার বিদায় দে মা ঘুরে আসি…”

 

যাত্রী ১ – উফ! থাম তো! একে গরমে প্রান বাঁচানো দায়, তার উপর কানের কাছে পরিত্রাহি চিৎকার।

 

যাত্রী ২ – ওগো পুঁটির বাবা, কোথায় গেলে গো, দেখতে পাচ্ছি না…. কই তুমি?

 

যাত্রী ৩ – আরে আছি আছি। তুমি নিশ্চিন্তে বসো।

 

বাচ্চা ছেলে গান গাইছে – “শনিবার বেলা ১০ টার পরে….”

 

যাত্রী ৪- আরে আরে দাদা, একটু সামলে… করছেন কি…. ঠিক মতন দাঁড়ান না।

 

যাত্রী ৩ –  অদ্ভুত তো! সেই সমানে আপনি আপনি ধাক্কা দিয়ে চলছেন, আর আমায় বলছেন?

 

যাত্রী ১ – অফিস টাইমে কেউ এত ব্যাগ পত্তর নিয়ে ওঠে না কী? বুদ্দি-শুদ্দি কিছুই নেই….

 

যাত্রী ২ – পুঁটির বাবা , কে তোমায় কি বলছে গা ? আসব না কি?

 

যাত্রী ৩ – আরে তুমি বসো তো; জীবন টা একেবারে শেষ হয়ে গেল। এটা পাব্লিক প্রপার্টি দাদা, আপনি বলে দেবেন না কি আমি কি কি নিয়ে উঠবো?

 

বাচ্চা ছেলে গান ধরেছে – “ ১২ লক্ষ ৩৩ কোটি, রইল মা তোর ব্যাটা-বেটি , মা গো”

 

যাত্রী ৪ – যা বলেছিস রে, মানুষ production এর তো আর কমতি নেই, সরকার একটু ট্রেন production  বাড়ালে ভালো করত। আরে আরে … পা টা কে তো দেখবেন।

 

যাত্রী ১ – ওহ ! সরি। লাগলো বুঝি?

 

যাত্রী ৪ – না না দাদা, পায়ে আমি অ্যানাস্হেসিয়া দিয়ে রেখেছি। আপনি বরং আমার পায়ের উপরেই দাঁড়ান।

 

যাত্রী ২ – ও পুঁটির বাবা, তোমার আওয়াজ পাচ্ছি না তো…. নেমে গেলে না কি?

 

যাত্রী ১ – বৌদি, দাদা নেমে গেলে আর উত্তর দেবে কি করে?

 

বাচ্চা ছেলের গান – “একবার বিদায় দে মা ঘুরে আসি”

 

যাত্রী ২ – ওগো পুঁটির বাবা গো, কি বলছে দেখো এরা…. ভ্যা………

 

যাত্রী ৩ – কি হচ্চেটা কি? ট্রেনটাকে কি তুমি বাড়ী পেয়েছ? এখনও কোন স্টেশনে কি গাড়ী থেমেছে? আছি তো আমি। কি জ্বালা…..

 

যাত্রী ১ – দাদা, আপনি একটা কাজ করুন, একটু কষ্ট করে বউদির কাছে চলে আসুন।

 

যাত্রী ৩ – দাদা, দয়া করে আর কষ্ট বাড়াবেন না।

 

বাচ্চা ছেলের গান – “ হাসি হাসি পড়বে ফাঁসি দেখবে ভারতবাসী”

 

যাত্রী ৪ – সামনের স্টেশনে নামবো দাদা, একটু এগোতে  দিন। আরে ভাই, একটু সরে দাঁড়ান না।

 

যাত্রী ৩ – দেখেছেন, আপনি কতটা জায়গা নিয়ে রেখেছিলেন; আপনি বেরচ্ছেন, আর জায়গা বেরোচ্ছে।

 

যাত্রী ৪ – মুখ সামলে কথা বলবেন। আপনি নিজে তো বিশ্ব হাড়গিলে। দেখেই মনে হচ্ছে অভাবের সংসার, খেতে পারেন না।

 

যাত্রী ১ – ঠিকই বলেছেন, আপনার মতন লোকেরাই বেশী বেশী খেয়ে দেশের অর্ধেক লোক কে না খাইয়ে রেখেছে।

 

যাত্রী ৩ – পুঁটির মা, রেডী হয়ে নাও, পরের স্টেশনেই নামবো।

 

বাচ্চা ছেলে – কাকু, পয়সা দিন….

 

যাত্রী ২ – ওগো, ট্রেনে কিন্তু ব্যাগ ট্যাগ বের করো না, চারদিকে পকেটমার।

 

যাত্রী ৪ – বৌদি, ভাববেন না। সব পকেটমার এতক্ষনে বুঝে গেছে যে দাদার সাথে আপনি আছেন।

যাত্রী ৩ – আমার ব্যাগ তো তোমার কাছে। রাখতে দিয়েছ কি আমায়?

 

যাত্রী ২ – চিৎকার করছ তো আমার উপর !! চলো বাড়ী, দেখাচ্ছি।

 

যাত্রী ১ – যান দাদা যান। বুঝেছি আমরা। আপনার সমস্যাটাই সবথেকে বেশী। অ্যাই ভাইলোগ, দাদা-বউদিকে যাবার রাস্তা করে দাও।

 

বাচ্চা –  কাকু পয়সা –

 

যাত্রী ৪ – নে ভাই, একবার পুরো গানটা গেয়ে দে দেখি….. গলাটা তোর বেশ খাসা।

 

বাচ্চা গান ধরে ….. “একবার বিদায় দে মা, ঘুরে আসি….”

Jayati Mukherjee

Jayati Mukherjee

A born dreamer, in a strong relationship with myself, blessed with wonderful people in my life and in a way to transforming my wishes into reality.

More Posts

Follow Me:
FacebookLinkedInGoogle Plus

Related posts

Leave a Comment