কিছু কথোপকথন

তৃষা : অনি কত রাত হল সে খেয়াল আছে ?

অনিকেত : কি করব – ঘুম আসছে না যে …..

তৃষা : বর্ষার ঠান্ডা হাওয়ায় এ ভাবে বারান্দায় এত রাতে দাঁড়িয়ে – ঠান্ডা লেগে যাবে অনি ….

অনিকেত : দেখ তৃষা কত দিন পর আজ আকাশটা তারা ঝলমলে, বহু দিন একটানা বৃষ্টির পর আজ আকাশটা মেঘ মুক্ত নির্মল – সব কটা তারা দেখা যাচ্ছে ……

তৃষা : কিন্তু হাওয়া টা তো ঠান্ডা, তোমার যে একটুতেই ঠান্ডা লেগে যায় অনি — তাছাড়া আজকাল তোমার সিগারেটের পরিমাণ টা বেড়েই চলেছে — তুমি না আমায় কথা দিয়েছিলে দিনে দুটোর বেশী নেবে না ….

অনিকেত : তৃষা আজ থাক না এসব কথা , কতদিন পর আমাদের দেখা হল — দেখ তৃষা তোমার লাগান গন্ধরাজ ফুলের গাছটা কত বড় হয়ে গেছে ….

তৃষা : হ্যাঁ অনি দেখছি তাই , আর একটু হলেই দোতলার বারান্দায় দাঁড়িয়ে ফুল তুলতে পারবে — তবে গোড়ায় অনেক আগাছা হয়ছে — বলাই দা কে বল পরিষ্কার করে মাটি টা আলগা করে খুঁচিয়ে দিতে …..

অনিকেত : না তৃষা ফুল আমি তুলব না  — গাছ থেকে তুলে নিলে সেই গন্ধ সেই সৌন্দর্য যে আর থাকে না তৃষা  — বরং রোজ এখানে দাঁড়িয়ে দেখব আর তোমার ভালোবাসা জড়ানো গন্ধরাজের গন্ধকে মনে প্রাণে মেখে নেব ……

তৃষা : আচ্ছা অনি বহু দিন তো হয়ে গেল, বিয়ে করবে কবে  — কেউ তো দরকার তোমার দেখভালের — বলাই দার বয়েস হচ্ছে , তাছাড়া মাঝে মাঝে দেশের বাড়ি গেলে তোমার কত কষ্ট হয়  — বাইরের খাওয়ার খেতে পারনা, অফিস থেকে ক্লান্ত হয়ে ফিরে লিকুইড কিছু নিয়ে শুয়ে পড়তে হয়, আমার যে খুব কষ্ট হয় …..

অনিকেত  : তুমি সব দেখ ?

তৃষা : ও মা দেখব না আবার — আমার ভালোবাসা কেমন আছে কি করছে, প্রতি মুহূর্তে তার নজর যে আমাকেই রাখতে হয়  — তাই তো কষ্ট হয় কিছু তোমার জন্য করে উঠতে পারিনা বলে …..

অনিকেত : তবে কেন এ ভাবে আমায় একা করে চলে গেলে তৃষা  — আমার যে আর বেঁচে থাকতে ইচ্ছে করে না ……

তৃষা : পাগলামি করে না অনি, সব কিছু কি আমার হাতে ছিল- তুমিই বল – তোমায় ছেড়ে যেতে কি আমার ও মন চেয়েছিল — দেখলে না যাওয়ার সময় শুধু তোমার নামই নিয়েছি …..

অনিকেত : কেন তৃষা কেন ????? যদি এভাবেই তোমায় ছেড়ে থাকতে হবে তবে ভগবান কেন আমাদের মিলিয়ে ছিলেন একসাথে …..

তৃষা : কে বলেছে অনি আমি তোমায় ছেড়ে আছি —  আমি তো সবসময় তোমার সাথে আছি  – তোমার ঢাল হয়ে তোমায় রক্ষা করে চলেছি প্রতি মুহূর্তে এবং করব ……

অনিকেত : কিন্তু আমি যে তোমায় দেখতে পাই না , কাছে পাই না তৃষা — আমার যে ভীষণ কষ্ট হয় ….

তৃষা : কেন অনি আমায় পাবে তুমি ঐ তারাদের মাঝে, পাবে গন্ধরাজের সুবাসে — মনের চোখ দিয়ে দেখ আমায় — দেখবে আমি আছি তোমায় জড়িয়ে ……

তৃষা  ::: এবার আমায় যেতে হবে অনি  — পূবের আকাশ লাল হয়ে আসছে  — মিলিয়ে যেতে হবে দিনের আকাশের পিছনে , ঐ তারাদের সাথে — ভালো থেকো অনি  — সিগারেট টা ছেড়ে দিও — বলাই দা কে বলে বাজার থেকে ছোট মাছ আনাবে, তোমার চোখের জন্য ভালো — আর বলবে তেল-ঝাল কম দিয়ে রান্না করতে , অনেক বেশী দিয়ে রান্না করে …. আর শোন, এ ভাবে রাত- জেগে কাটিও না — শরীরের ক্ষতি হয়ে যাবে —- আজ আসি অনি  – আর সময় নেই  —- ভালো থেকো অনি ………….

অনিকেত  ::: আর একটু থেকে গেলে হতো না তৃষা – আর একটু  – কিছুই যে বলা হল না তোমায় – আমি যে তোমায় খুব _____________ ।।।।।

Rinku Debnath

আমি রিঙ্কু দেবনাথ .... husband এর চাকরী সূত্রে প্রতি তিন চার বছর পর পর এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে ঘুরে বেড়ালেও মনে প্রণে পুরোপুরি বাঙালি ও পাকা গৃহবধূ । কাজের ফাঁকে ফাঁকে একটু আধটু লেখাটা আমার সখ......তবে অনভূতিকে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করি লেখাতে - বানিয়ে খুব একটা লিখতে পারি না । জীবন কে খুব হালকা ভাবে নিতে ভালোবাসি ... 'গতকাল' কে শিক্ষা হিসেবে মনে রেখে 'আজ' কে বাঁচতে ভালোবাসি .... আগামীকাল নিয়ে খুব একটা ভাবি না .... ভীষণ আনন্দ করতে প্রাণ খুলে আড্ডা মারতে পছন্দ করি । তোমাদের মাঝে আসতে পেরে আমার ভীষণ ভালো লাগছে .... অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই ম্যাগাজিনের কতৃপক্ষকে --- আমাকে তথা আমার লেখাকে সবার মাঝে নিয়ে আসার জন্য ।

More Posts

Related posts

Leave a Comment