তোমার পুরুষ

তোমার পাপহীন সংসারে অপরাধ কড়া নাড়ছে রোজ
লাল পেড়ে কাপড়ে লেগেছে কালো ছায়ার নির্বিকার রূপ
চুপিচুপি তোমার তুলসি মঞ্চে
আরও একজন নারী প্রণাম ঠোকে সন্ধ্যাবেলা
তোমার পরিচিত পুরুষ গন্ধ
আজ সেই নারীর বহুল পরিচিত।
আয়নায় আঁকো সিঁথি জুড়ে লাল টকটকে সিঁদুর
শরীরের ভাঁজে তোমার দামী আতরের আবাস
সেই নারীও আতর মাখে স্বেচ্ছায়
পুরুষ নিকোটিনের অন্য রকম আবছায়ায়।সমাজ নাম দিতে জানে সম্পর্কের
বয়সে টানতে পারে বেপরোয়া গণ্ডি
সমাজ নরীকে বহুবার “নষ্ট” করে
অথচ ভালোবাসায় সেই নারীও স্বাধীন।লজ্জা করে পরস্বামীর প্রেমিকা হতে
ভয় করে তোমার অজান্তে তাঁকে ভীষণ ভালোবাসতে
চাই না আমার আলাদা শোবার ঘর,
চাই না কপাল জোড়া ঘন রক্ত দাগ
চাই না পোয়াতি দিনে বিনম্র সোহাগী ছোঁয়া
আমি চাই না গর্ভে আনত অসামাজিক “পাপ”।
মা নই, অথচ মা আমি… তোমাদের স্বীকৃত প্রেমের।

বিশ্বাস করো, ক্ষোভ নেই কোনো
নেই কোনো হিংসাত্মক দাবি-দাওয়া
তোমার পুরুষ এ’ভাবেই তোমার বিছানা আগলাক
তোমার পুরুষ এ’ভাবেই আমায় ভালোবাসতে বারবার ভাবাক।

Related posts

Leave a Comment