শেষ থেকে শুরু

শেষ থেকে শুরু

বৃষ্টি অফিসের কাজে দিল্লী গেছে কিন্তু দিল্লীতে যাওয়ার ইচ্ছে তার ঠিক ছিল না। যেহেতু সে দিল্লীর মেয়ে তাই জায়গাটাও তার পরিচিত বলে অফিস থেকে তাকেই পাঠানো হয়েছে। দিল্লীর নেহেরু প্লেসের এক অফিসে কাজ আছে তাই লাজপত নগরের বিক্রম হোটেলেই অফিস থেকে বুকিং করে দিয়েছে। (১) বৃষ্টির জন্ম ও পড়াশুনা দিল্লীতেই, তাই দিল্লীর রাস্তা ঘাট ওর কাছে খুব পরিচিত। দিল্লীর লোকেদের নার্ভও ওর ভাল ভাবে জানা। মনে পরে যায় সেই ছেলেবেলার কথা। বাবা, মা-র হাত ধরে ছুটির দিনে ইণ্ডিয়া গেটের সামনে বেড়াতে যাওয়া, মনে পরে সেই দিনগুলো যখন লোদী গার্ডেনের বা…

Read More

হারিয়ে পাওয়া

হারিয়ে পাওয়া

লাল পাহাড়ের চূড়ার রোদ্দুর মাখা মেঘের দিকে অপলকে তাকিয়ে ছিল ধিতাং।কাল মহালয়া।বাড়িতে থাকলে এই সময় কত হইহই ।মা, কাকীমার সাথে হাজার দোকান ঘুরে ঘুরে কেনাকাটা, ফেরার পথে ফুচকা খাওয়া-মজাই আলাদা।টিকলি তো দিদিভাই ছাড়া কিছু জানতো না, কে জানে এখন টিকলি দিদিভাইকে আর আগের মতো ভালোবাসে কিনা ।উঁহু, বাসবে না ।কেউই তো আর ধিতাংকে ভালোবাসে না ।সবার চোখে ধিতাং খুনি হয়ে গেছে ।জলে ভরে আসে ধিতাং-এর চোখে । ফেসবুক খুলে বসে ধিতাং ।এই ফেসবুকের বন্ধুরাই তো তার জীবনের একমাত্র জানলা, যা দিয়ে তবু কিছু আলো আসে ।পুরোনো ছবিগুলো দেখে মাঝে মাঝে…

Read More

লিপস্টিক

লিপস্টিক

একটা ছোট্টো পৃথিবী, সাজানো একটা সংসার, স্বামী, ফুটফুটে একটা বাচ্চা, ব্যাস এই টুকুই চেয়েছিল মৌরি। কিন্তু সব কিছুই দুমড়ে মুচড়ে শেষ করে দিল শেষ বিকেলের আকাশে ওঠা  সিঁদুরে মেঘের মতো একটু “লিপস্টিক”।গতানুগতিক সামাজিক নিয়ম অনুযায়ী মেয়েকে বিয়ে দিতে হবে। নিজের ইচ্ছে, ক্যারিয়ার, নিজের বাবা মা, এমন কি নিজের স্বত্তা টুকুও বিসর্জন দিতে হবে একটা সম্মর্কের জন্য। নতুন পৃথিবী-নতুন জায়গা-নতুন সম্পর্ক এবং নতুন এক স্বপ্ন। আর বাকিদের মতোও মৌরিও স্বপ্ন দেখেছিল। সে স্বপ্ন দেখেছিল সকল কে নিয়ে বাঁচার। তত্ত্ব-গয়না-বিয়ে-আত্মীয়-রিশেপশান সব কিছুর মধ্যে মৌরি একপ্রকার হাঁপিয়ে উঠেছিল। তাও সমস্ত পিছুটান কে পেছনে…

Read More

সন্ত @ ইয়াহু.কম

সন্ত @ ইয়াহু.কম

কাফেতে বসে নেটে চ্যাট করাটা অত্যন্ত প্রিয় বিষয় হয়ে উঠেছে সন্তর । যবে প্রথম সে চ্যাটের আসরে নেমেছিল তখন সব কিছুতেই বিরক্তি বোধ করত । কম্পিউটারে বসাটা তার কাছে ছিল অসহ্য । কম্পিউটারে কাজ করতে বসলেই পাঁচজনকে ডাক পাড়তে হত কলেজে । কেউ সাড়া দিত, কেউ দিত না । অবশেষে বন্ধুদের মারফত কাফেতে ঢোকা, চ্যাটে হাত পাকানো । সন্ত দক্ষিণ কর্ণাটকার প্রত্যন্ত গ্রামের এক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে সেকেন্ড ইয়ারের স্টুডেন্ট । কম্পিউটার সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য এবং হাতে কলমে শিক্ষা- ইঞ্জিনিয়ারিং কর্মশিক্ষার মাধ্যমেই । ঘর ছেড়ে দূর দিগন্তে পাড়ি দিয়ে হস্টেল তার…

Read More

দৌড়

দৌড়

রবীন বাবু অল্প কিছুদিন হল চাকরী থেকে অবসর নিয়েছেন। চাকরী জীবনে অফিস আর ঘর, এ ছাড়া কিছুই জানতেন না। আজকাল দৌড় নিয়ে যে এত চিন্তা ভাবনা চলছে তা এতদিন বুঝতেই পারেন নি। মাঝেমধ্যে অবশ্য অফিস যাওয়ার পথে রোড ম্যারাথনের সন্মুখীন তাকে হতে হয়েছে। অবসরের পর কিছুদিন থেকেই ভাবছিলেন, দেহের মধ্যপ্রদেশটা যে ভাবে বেড়ে চলেছে তাতে কিছু একটা করতেই হবে। কিন্তু কিছুই করা হচ্ছিল না, শুধু মাত্র চিন্তা-ভাবনা ছাড়া।  পঞ্চবার্ষিকি পরিকল্পনা আর কি। কিন্তু হঠাৎ কোমরে, হাঁটুতে যন্ত্রণা শুরু হওয়াতে আর কোন উপায় না দেখে তাকে ডাক্তারের শরণাপণ্ণ হতেই হল। ডাক্তার…

Read More

সূর্যোদয়

সূর্যোদয়

মাস খানেক আগে হৈ হৈ করে পৃথার সাথে রজতের বিয়েটা হয়েছিল ।রজত বোনের বিয়েতে পৃথাকে দেখেই পৃথার প্রেমে পড়ে গেছিল।সবে মাত্র চাকরি পাওয়া রজত পৃথাকে প্রেম নিবেদন করে ব্যর্থ হওয়ার কোনও চান্স নেয় নি ।রজত খুব ছোটবেলায় মা বাবাকে হারিয়েছে, তাই জেঠা জেম্মার কাছেই মানুষ।সেদিন রাতেই জেম্মার কাছে এসে বলেছিল রজত ।তারপর আর কোনো সমস্যায় পড়তে হয় নি ।রজতের জেঠা পৃথার বাবার খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু ।তাই দুই বাড়ির সম্মতিতেই বিয়েটা হয়েছিল হৈ হৈ করেই। পৃথাকে নিয়ে হাজার হাজার স্বপ্ন দেখে গেছে রজত ।কিন্তু জেম্মার বারণ ছিল বিয়ের আগে ফোন বা…

Read More

কিছু কথোপকথন

কিছু কথোপকথন

তৃষা : অনি কত রাত হল সে খেয়াল আছে ? অনিকেত : কি করব – ঘুম আসছে না যে ….. তৃষা : বর্ষার ঠান্ডা হাওয়ায় এ ভাবে বারান্দায় এত রাতে দাঁড়িয়ে – ঠান্ডা লেগে যাবে অনি …. অনিকেত : দেখ তৃষা কত দিন পর আজ আকাশটা তারা ঝলমলে, বহু দিন একটানা বৃষ্টির পর আজ আকাশটা মেঘ মুক্ত নির্মল – সব কটা তারা দেখা যাচ্ছে …… তৃষা : কিন্তু হাওয়া টা তো ঠান্ডা, তোমার যে একটুতেই ঠান্ডা লেগে যায় অনি — তাছাড়া আজকাল তোমার সিগারেটের পরিমাণ টা বেড়েই চলেছে — তুমি…

Read More

কাঁটাতার

কাঁটাতার

২৩ শে মার্চ, ১৯৪০ মুসলিম লীগের সংখ্যা গরিষ্ঠতা অঞ্চল নিয়ে মুসলমানদের পৃথক রাষ্ট্র গঠনের পরিকল্পনা নিয়ে এ কে ফজিলুল হক প্রস্তাব করেন লাহোর প্রস্তাব। দ্বিজাতী তত্ত্বই জন্ম দিয়েছিল ভারত ও পাকিস্তানের। সময় এগিয়ে গেছে, গড়িয়ে গেছে দেশ ভাগ নিয়ে অনেক জল। ধর্ম-জাত-পাত সব কিছুর জন্য দেশ যখন ছাইয়ে পরিণত হচ্ছে তখনই সদ্য গজিয়ে ওঠা ভ্রুন হয়ে জেগে উঠেছিল একটি সম্পর্ক। নীরা আর অভি আবদ্ধ হয়েছিল প্রেমের বন্ধনে।করিমগঞ্জ এর প্রখ্যাত সান্যাল বাড়ীর আদুরে কন্যা নীরা ছোটো থেকেই বাবার আদর মাখা স্নেহে বড়ো হয়ে উঠেছে। ছোটো বেলাতেই মা কে হারিয়েছে নীরা।নীরার বাবা…

Read More

ভিক্ষা

ভিক্ষা

১ ফোনটা বেজে বেজে কেটে গেল।বৈশালী আবার চেষ্টা করল ফোন করে বিনোদকে ধরার।কিন্ত বিফল প্রচেষ্টা, ধরা গেল না। যথারীতি এক সুর কানের কাছে বেজে উঠল-“ the number is not responding, please try after some time”। ফোনে বিনোদকে না পাওয়ার বিরক্তি তার চোখে মুখে ফুটে উঠল।যত রাগ গিয়ে পড়ল ফোনটার উপর। রেগেমেগে ভাবল যত নষ্টের গোড়া এই ফোন। ফোন ছিল বলেই তার বিনোদের সাথে আলাপ হয়েছিল, ফোন ছিল বলেই অনর্থক এসএমএস এর পালা লেগেছিল, শুতে যাওয়ার আগে রোজ বলত-“ Goodnight baby, আভি শোনে যা রাহা হুঁ, কাল ফির মিলেংগে।” সেই বিনোদ…

Read More

ওরা-আমরা

ওরা-আমরা

আমরা যখন বড়ো হচ্ছিলাম, তখন প্রায়শই চারিদিকে ঘটি আর বাঙালদের বাক্ যুদ্ধ শুনতে পেতাম।এখন তো সে সব অতীত।এখন ঘরে ঘরে বাটিদের বাস।আমরা ছিলাম শুদ্ধ ঘটি, বাড়িতে প্রায়ই একটা কথা শুনতে পেতাম, “ওরা তো বাঙাল, ওদের কথা বাদ দে তো!” কিন্তু কেন যে বাদ দেবো , সেটা বুঝতাম না। সল্টলেকে আমার জন্ম না হলেও মোটামুটি জ্ঞান হওয়া থেকে ওখানেই থাকি,আমাদের আশপাশের প্রায় সবাই বাঙাল, পাড়ার বন্ধু, স্কুলের বন্ধুর বেশির ভাগই  বাঙাল। যার ফলে অবচেতন মনে আমার বাঙাল প্রীতি তৈরি হয়ে গেছিল। চিরকালই আমি খুব খাদ্যরসিক মানুষ, যারা আমায় অল্প চেনে তারাও…

Read More
Page 1 of 6
1 2 3 6